সম্প্রদায় কি বা সম্প্রদায় কাকে বলে?

0
213

সম্প্রদায়

Community

ইংরেজি Community’ শব্দের বাংলা প্রতিশব্দ হচ্ছে ‘সম্প্রদায়’।

একদল লোক যখন কতকগুলো সাধারণ স্বার্থ এবং অনুভূতি, একই আচার-ব্যবহার এবং রীতিনীতিতে প্রণোদিত হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে মিলেমিশে, সুখে-স্বাচ্ছন্দ্যে জীবনযাপন করে তখনই সম্প্রদায় গঠিত হয়েছে বলা হয়।

এ সম্প্রদায় ক্ষুদ্রাকারে কিংবা বৃহদাকারে এক অথবা একাধিক উদ্দেশ্য নিয়ে নয় বরং তাদের জীবনের সামগ্রিক প্রয়োজনসমূহ মিটিয়ে থাকে।

সম্প্রদায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে গঠিত হয়ে থাকে। এর কোনো স্বার্থ কিংবা উদ্দেশ্য নির্ণীত হয় না।

সম্প্রদায় বলতে এমন একটি জনগোষ্ঠীকে বোঝায় যারা একই রীতিনীতি, প্রথাপ্রতিষ্ঠান, আচার-ব্যবহার ও জীবনযাত্রা প্রণালিতে অভ্যস্ত এবং স্বজাত্যবোধ চেতনায় প্রবলভাবে সচেতন।

একই এলাকা ও সমমানসিকতাসম্পন্ন মানুষ নিয়েই সম্প্রদায় গঠিত হয়। যেমন— হিন্দু সম্প্রদায়, মুসলমান সম্প্রদায়, গ্রাম সম্প্রদায় ইত্যাদি।

সমাজবিজ্ঞানী ম্যাকাইভার ও পেজ বলেন, “যখন কোনো ছোট বা বড় গোষ্ঠীভুক্ত সদস্যরা এমনভাবে বসবাস করে যে, তারা কোনো বিশেষ স্বার্থে অংশগ্রহণ না করে এক সাধারণ জীবনের মৌলিক প্রয়োজনে অংশগ্রহণ করে, তখন সেই গোষ্ঠীকে আমরা সম্প্রদায় বলি।”

গ্রিক দার্শনিক এরিস্টটল সম্প্রদায়ের সংজ্ঞায় বলেন, “সমাজে স্বাভাবিকভাবে সম্প্রদায় গড়ে ওঠে।”

সমাজবিজ্ঞানী কিংসলে ডেভিস বলেন, “সম্প্রদায় হলো একটি নির্দিষ্ট স্থানের জনসমষ্টি যারা সকলে একই সামাজিক রীতিনীতিতে আবদ্ধ।”

সমাজবিজ্ঞানী জিন্সবার্গ বলেন, “সম্প্রদায় হলো কোনো একটি অঞ্চলে বসবাসরত একদল লোক যারা সাধারণ রীতিনীতির দ্বারা ঐক্যবদ্ধ এবং অন্তর্ব্যক্তিক সম্পর্কে সম্পর্কযুক্ত।

যে জার্মান সমাজবিজ্ঞানী এফ টনিস বলেন, “Community is defined as intimate, private and exclusive living g together,” (সম্প্রদায় হচ্ছে হৃদ্যতাপূর্ণ একান্ত জনগোষ্ঠী যারা একত্রে বসবাস করে)।

অগবার্ন ও নিমকফ বলেন, “A community is a group or a collection of groups that inhabits a locality.” (সম্প্রদায় হচ্ছে এক বা একাধিক জনগোষ্ঠী যারা একটি অঞ্চলে বসবাস করে)।

ম্যাকাইভার-এর মতে, সম্প্রদায়ের বৈশিষ্ট্য দুটি; যথা- ১. অঞ্চল (Area) ও ২. সম্প্রদায়গত মানসিকতা (Community sentiment) ।

১. অঞ্চল (Area) : যেকোনো সম্প্রদায় একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলে বসবাস করে। একই অঞ্চলে বসবাসকারী সম্প্রদায়ের লোকেরা একটি নিবিড় বন্ধনে বাঁধা ।

২.সম্প্রদায়গত মানসিকতা (Communal sentiment) : একই সম্প্রদায়ের অধীন বিভিন্ন ব্যক্তি পারস্পরিক সম্পর্ক প্রসঙ্গে অধিক সচেতন থাকে।

একই সম্প্রদায়ের অধীন বিভিন্ন ব্যক্তির মধ্যে ভাষাগত, আচার-আচরণগত ও রীতিনীতিগত সাদৃশ্য লক্ষ করা যায় ।

অতএব বলা যায়, সম্প্রদায় হলো এমন একটি এলাকা যেখানে সমজাতীয় জীবনযাত্রায় অভ্যস্ত জনগোষ্ঠী পরস্পর | সংহতিবোধের মাধ্যমে একত্রে বসবাস করে।