১২.৩৪ ৷৷ ব্যাংক ঋণ কি? ১২.৩৫৷৷ ব্যাংক ঋণের বৈশিষ্ট্য/শর্ত। bilities Manage What is Bank Credit? Characteristics or terms of bank credit.

১২.৩৪ ৷৷ ব্যাংক ঋণ কি? bilities Manage What is Bank Credit?

প্রকৃতপক্ষে ব্যাংক পরের অর্থ নিয়ে কারবার করে থাকে। তাই ব্যাংকের অন্যতম কাজ হলো বিভিন্ন হিসাবের মাধ্যমে জনগণের মাধ্যমে মুনাফা অর্জন করা। তাই বিনিয়োগ বাদে বাকি অর্থ ধার বা ঋণ দেয়াকে ব্যাংকের ঋণ ও অগ্রিম বলে। সাধারণ অর্থে, নিকট হতে আমানত সংগ্রহ করা এবং তা হতে যথাযথ তারল্য সংরক্ষণ করে বাকি অর্থ ঋণ ও লাভজনক খাতে বিনিয়োগের ঋণের ব্যবসায়ী হিসেবে ব্যাংক কর্তৃক তার মক্কেলদের দেয়া যাবতীয় ধার বা ঋণকে ব্যাংকের ঋণ বলে। ব্যাপক অর্থে, ব্যাংক গ্রাহকদের নগদ অর্থ অথবা ঋণের দলিলসমূহের মাধ্যমে যে সুনাম, বিশ্বাস ও সেবাসমূহ ধার হিসেবে দিয়ে থাকে তাকে একক। অথবা সামগ্রিকভাবে ব্যাংকের ঋণ বলা হয়

অধ্যাপক Hanson-এর মতে, When a Bank makes an advance to a customer whether by over-draft or loan account is called bankers credit (Bank Credit)” |

ড: এ, আর, খান-এর মতে, “ধারের শর্তসাপেক্ষে মক্কেলকে ব্যাংক প্রদত্ত নগদ অর্থ কিংবা দলিলের মাধ্যমে প্রদত্ত সুনাম ও সেবাকে ব্যাংকের ঋণ, অগ্রিম বা আগাম বলা হয়।”

ঋণগ্রহীতার প্রতি বিশ্বাসই ব্যাংক ঋণের ভিত্তি এবং বিশ্বাসের মূল ভিত্তি হলো চরিত্র (Character), ক্ষমতা (Capacity) এবং
মূলধন (Capital) । মি: সেগুলার এগুলোকে Three C’S নামে অভিহিত করেছেন।

অনেকে এই তিনটি গুণকে (Reliability), দায়িত্বশীলতা (Responsibility) এবং সম্পদশীলতা (Resoursces) বলে অভিহিত করে থাকে। ইহা Three R’ নামে খ্যাত। যিনি এই তিনটি গুণের অধিকারী তিনিই ব্যাংক ঋণ পেতে পারেন।

উপরের আলোচনার প্রেক্ষিতে বলা যায় যে, ব্যাংক অথবা ব্যাংকারগণ তাদের মক্কেলদের সুবিধার্থে নগদ অর্থ অথবা অন্য যে কোন সেবা ধার হিসেবে প্রদান করে তাকেই ব্যাংকের বা ব্যাংকারের ঋণ বলা হয়।

১২.৩৫৷৷ ব্যাংক ঋণের বৈশিষ্ট্য/শর্ত । Characteristics or terms of bank credit

বিভিন্ন কারবারী প্রতিষ্ঠান ব্যাংক হতে স্বল্পমেয়াদের ভিত্তিতে যে ঋণ গ্রহণ করে তাকে ব্যাংক ঋণ বলে। সাধারণত বাণিজ্যিক ব্যাংক কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে বিশ্বাস করে জামানত যুক্ত বা জামানতহীন যে কোন ধরনের ঋণ নগদ প্রদান করলে তাকে ব্যাংক ঋণ বলা হয়। নিম্নে এ ঋণের বৈশিষ্ট্যগুলো বর্ণনা করা হলো:-

ঋণের ধরন (Forms of loan) : ব্যাংকগুলো তাদের মক্কেলদের সুবিধা দেবার জন্য নানা ধরনের ব্যাংক ঋণ মঞ্জুর করে
থাকে। যেমন- নগদ ঋণ, জমাতিরিক্ত ঋণ, চাহিবামাত্র দেয় ঋণ ইত্যাদি ।

ঋণের আকার (Size of loan) : সাধারণত বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো স্বল্প ও মধ্যমমেয়াদি ঋণ প্রদান করে থাকে। ফলে স্বল্পমেয়াদি ঋণের আকার বা পরিমাণ কম হয় কিন্তু সংখ্যায় প্রচুর হয় অর্থাৎ অনেককে এ ধরনের ঋণ প্রদান করা হয়।

পরিশোধ কাল (Repayment period) : স্বল্পমেয়াদি ব্যাংক ঋণ পরিশোধকাল কম থাকে। তাই উক্ত সময়ের মধ্যে ব্যবসায়ীদের ঋণ পরিশোধ করতে অনুরোধ করা হয় ।

জামানত (Security) : স্বল্পমেয়াদি ঋণ জামানতযুক্ত ও জামানতহীন হতে পারে। সাধারণত ব্যক্তিগত, অব্যক্তিগত ও অতিরিক্ত জামানতের বিপরীতে এ ধরনের ঋণ মঞ্জুর করা হয়।

ব্যাংক ঋণের খরচ (Cost of bank credit) : ব্যাংক সাধারণত দুটি পদ্ধতিতে স্বল্পমেয়াদি ঋণগ্রহীতার থেকে সুদ আদায় করে থাকে । প্রথমটি হলো, ঋণ দেবার সময় সুদ কেটে বাকি অর্থ প্রদান, আন্যটি হলো ঋণ পরিশোধের সময় সুদ ও আসল গ্রহণ ।

ঋণ গ্রহীতার আকার (Size of loan taker) : সাধারণত খুচরা ব্যবসায়ী, পাইকারি ব্যবসায়ী ও উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান স্বল্পমেয়াদি ঋণের গ্রহীতা।

সুদের হার (Interest rate) : স্বল্পমেয়াদি ঋণের ক্ষেত্রে সাধারণত অন্যান্য ঋণের চেয়ে কম হারে সুদ চার্জ করা হয়। এর কারণ হচ্ছে এ ধরনের ঋণের পরিশোধ কাল কম।

আনুষ্ঠানিকতা (Formalities) : এ ধরনের ঋণ গ্রহণ করতে ঋণগ্রহীতাকে বেশি আনুষ্ঠানিকতা পালন করতে হয় না। ফলে অতি অল্প সময়ে ব্যাংক হতে এ ধরনের ঋণ পাওয়া যায়।

Previous article
Next article

Share post:

Subscribe

Popular

More like this
Related

সপ্তম/৭ম শ্রেণীর বিজ্ঞান অনুশীলন পাঠ গাইড PDF Download ২০২৪ | Best Class 7 Science Exercise Book Guide PDF Download 

সপ্তম/৭ম শ্রেণীর বিজ্ঞান অনুশীলন পাঠ গাইড PDF Download ২০২৪...