বাজারজাতকরণ ব্যবস্থার অভ্যন্তরীণ চলকগুলো বর্ণনা কর

0
30

প্রশ্ন ॥২.০৭ বাজারজাতকরণ ব্যবস্থার অভ্যন্তরীণ চলকগুলো বর্ণনা কর।

উত্তর : ভূমিকা ভূমিকা : যে সকল পক্ষ, শক্তি ও পারিপার্শ্বিক উপাদানসমূহ প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরে অবস্থান করে বাজারজাতকরণ কর্মকাণ্ডকে প্রভাবিত করে তাকে বাজারজাতকরণ ব্যবস্থার অভ্যন্তরীণ চলক বা পরিবেশ বলে।

→ বাজারজাতকরণ ব্যবস্থার অভ্যন্তরীণ চলকগুলো : নিম্নে বাজারজাতকরণ ব্যবস্থার অভ্যন্তরীণ চলকগুলো বর্ণনা করা হলো :

১. পণ্য : ভোক্তা বা ক্রেতাদের প্রয়োজন, অভাব ও চাহিদা মেটাতে সক্ষম এমন যা কিছু বাজারে উপস্থাপন ও বিক্রয় করা হয় তাকেই পণ্য বলে। এ প্রসঙ্গে ফিলিপ কটলার এবং গ্যারী আর্মস্ট্রং বলেন, “পণ্য হচ্ছে দ্রব্য ও সেবার সমষ্টি যা কোম্পানি লক্ষ্যস্থিত বাজারে প্রদান করে।”

২. বণ্টন : উৎপাদনকারী বা আমদানিকারকের নিকট থেকে পণ্য ভোক্তা বা ক্রেতার নিকট পৌছানোকে বণ্টন বলে। এ প্রসঙ্গে ফিলিপ কটলার ও গ্যারী আর্মস্ট্রং বলেন, “পণ্যকে অভীষ্ট ভোক্তাদের নিকট সহজলভ্য করার জ্য কোম্পানির কার্যক্রমসমূহ বণ্টনের অন্তর্ভুক্ত।”

৩. প্রসার : পণ্য সম্পর্কিত তথ্য ভোক্তা বা ক্রেতাকে অবহিত করে উক্ত পণ্য ক্রয়ে তাদেরকে আগ্রহী করে তোলাকে প্রসার বলে। এ প্রসঙ্গে ফিলিপ কটলার ও গ্যারী আর্মস্ট্রং বলেন, “প্রসার হচ্ছে ঐসব কার্যাবলি যা দ্বারা অভীষ্ট ক্রেতাদের পণ্যের উপকারিতা জানানো হয় এবং উক্ত পণ্য ক্রয়ে প্ররোচিত করা হয়।

৪. মূল্য : কোন পণ্য ক্রয় করার জন্য ভোক্তা বা ক্রেতাকে যে পরিমাণ অর্থ প্রদান করতে হয় তাকে মূল্য বলে। এ প্রসঙ্গে ফিলিপ কটলার ও গ্যারী আর্মস্ট্রং বলেন, “পণ্য গ্রহণের জন্য যে পরিমাণ অর্থ প্রদান করতে হয় তাকে মূল্য বলে।”

উপসংহার : পরিশেষে বলা যায় যে, উপরের আলোচনার মাধ্যমে আমরা বাজারজাতকরণ ব্যবস্থার অভ্যন্তরীণ পরিবেশের বিভিন্ন চলক বা উপাদান সম্পর্কে জানতে পারি ।