বাজারজাতকরণ ব্যবস্থাপনার দর্শনসমূহ আলোচনা কর।

0
266

প্রশ্ন ১.২৩ বাজারজাতকরণ ব্যবস্থাপনার দর্শনসমূহ আলোচনা কর।

অথবা, বাজারজাতকরণ ব্যবস্থাপনার দর্শন/ মতবাদসমূহ আলোচনা কর।

অথবা, বাজারজাতকরণ ব্যবস্থাপনার পরিচিতি আলোচনা কর।

অথবা, বাজারজাতকরণ ব্যবস্থাপনার পাঁচটি দর্শন আলোচনা কর।

উত্তর : ভূমিকা : বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের বাজারজাতকরণ কার্যাবলি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য বিভিন্ন রকম বাজারজাতকরণ মতবাদ অনুসরণ করে থাকে। প্রখ্যাত বাজারজাতকরণ বিশেষজ্ঞ Philip Kotler and Gary Armstrong ৫টি বাজারজাতকরণ ব্যবস্থাপনার দর্শন উল্লেখ করেছেন। ব্যবসায় ও অব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলো এর যে কোনটির অধীনে পরিচালিত হতে পারে। নিম্নে বাজারজাতকরণ দর্শনগুলো বর্ণনা করা হলো।

যথা-

১. উৎপাদন মতবাদ : বাজারজাতকরণ মতবাদের মধ্যে এটি সবচেয়ে পুরাতন দর্শন। যেখানে মনে করা হয় যে, ক্রেতা ঐ পণ্য পছন্দ করবে যার পর্যাপ্ত সরবরাহ রয়েছে এবং যা দামে কম। ১৮৬০ সাল থেকে ১৯২০ সাল পর্যন্ত অনেক প্রতিষ্ঠান এ মতবাদটি গ্রহণ করে পরিচালিত হয়। এ প্রসঙ্গে Philp Kotler এবংঐ সকল পণ্য পছন্দ করবে যা সহজলভ্য ও ক্রয় ক্ষমতাহীন। “


২.পণ্য মতবাদ : পণ্য ধারণাটি ক্রেতাদের পরিচালিত করার আরেকটি অন্যতম মতবাদ। এ মতবাদে বিশ্বাস করা হয় য় সর্ব্বোচ্চ মান, কার্যকারিতা এবং বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন পণ্য বা সেবা
ভোক্তাদের পছন্দ। তাই প্রতিষ্ঠান পণ্যের গুণাগুণ, ডিজাইন, সাইজ, প্যাকেজিং বৈশিষ্ট্য এবং আনুসঙ্গিক বিষয়াবলি উন্নয়নের প্রতি শক্তি নিয়োগ করে থাকে। পণ্য মতবাদ প্রসঙ্গে Philip Kotler এবং Kevin Lane Keller বলেন, “পণ্য মতবাদ অনুযায়ী মনে করা হয় যে, ভোক্তারা ওইসব পণ্য বেশি পছন্দ করবে যেসব পণ্যে সর্বোচ্চ মান, কার্যকারিতা ও উদ্ভাবনী বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান।


৩. বিক্রয় মতবাদ : অনেক প্রতিষ্ঠান বিক্রয় মতবাদ মা অনুসরণ করে থাকে। বিক্রয় মতবাদের মূল কথা হচ্ছে অধিক বিক্রয়ের মাধ্যমে অধিক লাভ করা। ১৯২০ সালের মাঝামাঝি থেকে ১৯৫০ সালের প্রথম দিক পর্যন্ত এ মতবাদ অনুসরণ করা হতো। এ প্রসঙ্গে Philip Kotler এবং Gary Armstrong বলেন, “বিক্রয় মতবাদ অনুসারে ধরে নেয়া হয় যে, প্রতিষ্ঠান ব্যাপক = মাত্রায় বিক্রয় প্রসার কার্যক্রম গ্রহণ না করলে ভোক্তারা প্রতিষ্ঠানের পণ্য পর্যাপ্ত পরিমাণ ক্রয় করবে না।”

৪. বাজারজাতকরণ মতবাদ : সর্বাধিক প্রচলিত মতবাদ হিসাবে এটা স্বীকৃত। ১৯৫০ সাল থেকে এ মতবাদ শুরু হয়ে বিভিন্ন দেশে আজও এ মতবাদ অনুসরণ করা হচ্ছে। এ মতবাদকে মনে করা হয় Comsumer is the king or Queen M তাই ভোক্তার প্রয়োজন ও অভাব পূরণই এ মতবাদের মূল কথা
এ প্রসঙ্গে Philip Kotlar and Gary Armstrong বলেন, বাজারজাতকরণ মতবাদ অনুমান করা যায় যে, লক্ষ বাজারের প্রয়োজন ও অভাব ।


৫. সামাজিক বাজারজাতকরণ: মতবাদ সমাজের জন্য অপ্রয়োজনীয় ও ক্ষতিকর ধারণা বা অভ্যাসসমূহ বর্জনের মাধ্যমে- ভোক্তাদের সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য বাজারজাতকরণ কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে কোন সংগঠিত দলের প্রচেষ্টাকে সামাজিক বাজারজাতকরণ মতবাদ বলে। ১৯৭০ সালের পর থেকেই এ মতবাদ শুরু হয়
এ মতবাদ প্রসঙ্গে Philip Kotler And Gary Armstrong বলেন, “সামাজিক বাজারজাত মতবাদ হচ্ছে এমন একটি ধারণা যেখানে কোম্পানির বাজারজাতকরণ সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে ভোক্তার অভাব, কোম্পানির প্রয়োজন এবং ভোক্তা ও সমাজের দীর্ঘমেয়াদি অর্থ বিবেচনা করা হয়।


উপসংহার : উপরিউক্ত আলোচনা থেকে বলা যায় যে, ভোক্তার স্বার্থ, পরিবেশ সচেতনতা, সন্তুষ্টি, প্রতিযোগিতা প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্য প্রভৃতি বিবেচনা করে বাজারজাতকারীকে পাঁচটি দর্শন অনুসরণ করতে হয়।