‌‌‌গণতন্ত্রে রাজনৈতিক দলের গুরুত্ব:

গণতন্ত্রে রাজনৈতিক দলের গুরুত্ব
Importance of Political Party in Democracy

গণতন্ত্র মানেই হচ্ছে রাজনৈতিক দলের উপস্থিতি। গণতন্ত্রের সফলতার জন্য রাজনৈতিক দলের গুরুত্ব অপরিসীম।

কেননা রাজনৈতিক দল জনগণের মতামতকে সুসংগঠিত করে এবং জনগণের মধ্যে রাজনৈতিক চেতনার বিকাশ ঘটায় ।
গণতান্ত্রিক সরকার পরিচালনার জন্য তাই রাজনৈতিক দল অপরিহার্য।

রাজনৈতিক দল নেতা ও সদস্যদের গণতান্ত্রিক আচার-আচরণে অভ্যস্ত হতে শেখায়।

এটি দেশের জনসাধারণকে ঐক্যবদ্ধ করে সংক্ষিপ্ত কর্মসূচির ছত্রচ্ছায়ায় নিয়ে আসতে কাজ করে। যে কারণে দেশের জনসাধারণ একই ধরনের চিন্তাসূত্রে আবদ্ধ হয়।

যেকোনো একটি কর্মসূচিকে সমর্থন করতে এবং তা অনুসরণ করতে রাজনৈতিক দল জনসাধারণকে শিক্ষাদান করে।

রাজনৈতিক দলের মাধ্যমেই দেশে নতুন নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি হয়।

গণতান্ত্রিক সরকার গঠন ও পরিচালনার ক্ষেত্রে রাজনৈতিক দলের গুরুত্ব অনস্বীকার্য।

গণতন্ত্রে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে। সরকার গঠনের জন্য নির্বাচনের সময় নিজ দলের প্রার্থীদের পক্ষে প্রচারকার্য পরিচালনা করে।

পরবর্তী সময়ে নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনকারী রাজনৈতিক দল সরকারের কর্মকাণ্ড ও নীতি সমর্থন করে এবং নীতিনির্ধারণ ও বাছাইয়ে সরকারকে সহায়তা করে।

রাজনৈতিক দল সরকারের স্বেচ্ছাচারিতা দূর করে এবং সরকারের কর্মকাণ্ডে গতিশীলতা আনে।

গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় বিরোধী দল সরকারি দলের কার্যক্রম ও সিদ্ধান্তের উপর খুব সূক্ষ্মভাবে দৃষ্টি রাখে বলে সরকারি দল জনসমর্থন ও ক্ষমতা হারানোর ভয়ে কোনো ধরনের অগণতান্ত্রিক আচরণ বা স্বেচ্ছাচারিতা করতে পারে না।

এক্ষেত্রে অধ্যাপক লাস্কির মন্তব্যটি প্রণিধানযোগ্য। তিনি রাজনৈতিক দলকে স্বৈরতান্ত্রিক প্রবণতার রক্ষাকবচ বলে আখ্যায়িত করেছেন।

রাজনৈতিক দল জনসাধারণ ও সরকারের মধ্যে যোগসূত্র হিসেবে কাজ করে। জনগণের অভাব-অভিযোগ রাজনৈতিক দলের মাধ্যমে সরকারের কাছে পৌঁছে।

রাজনৈতিক দলের মাধ্যমে জনমত প্রতিফলিত হয়। তাই সরকারের টিকে থাকা রাজনৈতিক দলের উপর নির্ভর করে।

জনগণের অধিকার রক্ষায় রাজনৈতিক দল ব্যাপক ভূমিকা পালন করে। কোনো কারণে জনগণের অধিকার খর্ব হলে রাজনৈতিক দল তা ফিরিয়ে আনার জন্য অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।

অর্থাৎ জনগণের স্বার্থবিরোধী সরকারকে অপসারণ করে রাজনৈতিক দল গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য আন্দোলন করে।

যেমন, ১৯৯০ সালে রাজনৈতিক দলগুলো আন্দোলনের মাধ্যমে সামরিক সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে।

গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থায় একটি নির্দিষ্ট সময় পর নির্বাচনের মাধ্যমে সরকারের ক্ষমতা পরিবর্তন হয়।

এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে রাজনৈতিক দল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। এখানে রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণ অপরিহার্য।

রাজনৈতিক দল গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থায় ঐক্য, শৃঙ্খলা ও স্থিতিশীলতা আনে।

এমনকি পরাধীন কোনো দেশের স্বাধীনতা ও স্বাধিকার প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রেও রাজনৈতিক দলই মুখ্য ভূমিকা পালন করে।

যেমন— স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভূমিকা ছিল অসাধারণ।

আবার ভারত ও পাকিস্তানের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠায় কংগ্রেস ও মুসলিম লীগের অবদান ছিল অতুলনীয়।

রাজনৈতিক দলসমূহ জনগণের প্রকৃত সমস্যা তুলে ধরাসহ রাষ্ট্রীয় সমস্যা চিহ্নিতকরণ ও সেগুলোর সমাধানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

এক্ষেত্রে রাজনৈতিক দলের বিকল্প মেলা ভার। এছাড়া জাতীয় সংকটকালে, যথা— দুর্ভিক্ষ, বন্যা, খরা, ভূমিকম্প, ঝড়, জলোচ্ছ্বাস ইত্যাদি প্রাকৃতিক দুর্যোগে রাজনৈতিক দলসমূহ জনগণের পাশে এসে দাঁড়ায়।

জাতীয় সংকটজনক পরিস্থিতি মোকাবিলা এবং জাতীয় ঐক্য ও রাষ্ট্রীয় অখণ্ডতা বজায় রাখতে রাজনৈতিক দল অসামান্য অবদান রাখে।

দেশের নাগরিকদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার উপর গণতন্ত্রের সফলতা নির্ভর করে।

রাজনৈতিক দল বিভিন্ন কর্মসূচি, সভা, সেমিনার, বক্তৃতা, মিছিল, প্রচার ইত্যাদির মাধ্যমে নাগরিকদের রাজনৈতিক শিক্ষা দিয়ে সুনাগরিক হতে সাহায্য করে এবং নিজেদের দলীয় নীতি ও কর্মকাণ্ডের সমর্থনে জনমত গঠন করে।

মূলত আধুনিক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের মূলভিত্তি হলো দলীয় ব্যবস্থা, যার প্রাণ রাজনৈতিক দল।

তাই গণতন্ত্রকে সফল রূপ প্রদানের জন্য রাজনৈতিক দল অপরিহার্য।

সুতরাং বলা যায়, গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থায় রাজনৈতিক দলের গুরুত্ব অপরিসীম।

রাজনৈতিক দল ছাড়া গণতন্ত্রের অগ্রগতি কোনোভাবেই আশা করা যায় না।

রাজনৈতিক দল ও গণতন্ত্র ওতপ্রোতভাবে সম্পর্কযুক্ত।

Share post:

Subscribe

Popular

More like this
Related

সপ্তম/৭ম শ্রেণীর বিজ্ঞান অনুশীলন পাঠ গাইড PDF Download ২০২৪ | Best Class 7 Science Exercise Book Guide PDF Download 

সপ্তম/৭ম শ্রেণীর বিজ্ঞান অনুশীলন পাঠ গাইড PDF Download ২০২৪...